Monday, 26 June 2017

১০ ফুটের পিতলের রথ এখন বীরনগরের সাবেকী ইতিহাস

১০ ফুটের পেতলের রথে দরিতে টান দেওয়ার সাবেকী ইতিহাসে আজও জমজমাট নদিয়ার বীরনগরের মুখার্জী পরিবারের রথযাত্রা। শুধু নদিয়া জেলা নয় রাজ্যের মধ্যে আর কোথাও এই ধরনের পিতলের রথ আছে কিনা তা জানেনা মুখার্জী পরিবারের সদস্যরা। ১০ ফুট লম্বা এই রথের সব কিছুই পিতলের, এমনকি চাকাগুলিও পেতলের। বেশ কয়েক বছর আগে রথের দুই ধারে পিতলের সারথী দুটি চুরি হয়ে যায়।
জানা গিয়েছে, অধুনা পূর্ব বঙ্গের ঢাকা থেকে ১৭৫৫ সাল নাগাদ নদিয়ার বীরনগরে আসেন মুখার্জী পরিবার। মুস্তাফী পরিবারের পরেই বীরনগরে মুখার্জী পরিবারের আগমন বলে জানা যায়। বীরনগরে এসে জমিদারী লাভ করেন তারা। রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের অধীনে তাদের জমিদারীর সময় ধর্ম নিয়ে প্রচার বেশ প্রসার হয়েছিল তাদের হাত দিয়ে।

 ঢাকা থেকে আসার মহাদেব মুখার্জী জলপথে এই রথ নিয়ে আসেন বলে জানা যায়।
তবে নদিয়ায় এই রথের জাঁকজমক ঘটান জমিদার বামনদাস মুখার্জী। সেই হিসাবে এই রথের বয়স প্রায় ৩০০ বছর ধরে নেওয়া হয়। বামনদাসের মৃত্যুর পর প্রায় ৪ পুরুষ ধরে চলছে এই রথযাত্রা। আগে সারা বীরনগর জুড়ে এই রথ নিয়ে পরিক্রমা হতো। তবে এখন আর সেটি হয়না। এখন ঘর থেকে রথ বের করে কিছু দূর দিয়ে সেটিকে ঘুরিয়ে এনে রথঘরের সামনে রেখে দেওয়া হয়।
পরিবারের বর্তমান সদস্য দেবু মুখার্জী জানান, আগে পরিবারের সমস্ত সদস্যরা এখানে থাকতেন, তাই বড় করে অনুষ্ঠান করা হতো। এখন পরিবারের মাত্র ৭ জন শরীক থাকেন। তিনি আরও জানান, বেশ কয়েক বছর আগেও সারা শহর জুড়ে যখন রথ পরিক্রমা করা হতো তখন হাজার হাজার মানুষ পথে নামত, রথঘরের কাছে মেলা বসত। এখন সব স্মৃতি। এখন ট্রাস্টই বোর্ড তৈরি করে সব কিছু পালন করা হয়। তবে তবে জাঁকজমক ভাবে রথযাত্রা না হলেও রীতি নীতি একই রেখেছেন পরিবারের মহিলারা।

No comments:

Post a Comment